20 Dec 2017

“স্মৃতিতে ৭১”

“দেশটা যেহেতু আমার, দায়িত্বটাও সেহেতু আমার”- এই প্রত্যয় নিয়ে গত ১৬ই ডিসেম্বর ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ কুমিল্লা জেলা একটি ইভেন্টের আয়োজন করে।

জেলা সদর রসুলপুর (একাত্তরে যার নাম ছিল ফকির হাট), কুমিল্লা শহর থেকে ৫ কিলোমিটার উত্তরে। ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযোদ্ধাকালে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী রসুলপুর রেল লাইনের পাশে আঁকাবাঁকা রাস্তার ধারে একটি উঁচু ফসলি জমিকে বধ্যভূমিতে পরিণত করেছিল।
স্বাধীনতার ৪৬ বছর পার হল। বর্তমান প্রজন্ম মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে যা জানে তার বেশিরভাগই বই থেকে পড়ে জানে। আমাদের খুব কম ই সুযোগ হয় মুক্তিযোদ্ধাদের মুখে তাদের বীরত্বের স্মৃতিকথা শুনতে। ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ কুমিল্লা জেলা “স্মৃতিতে ৭১” ইভেন্টের মাধ্যমে সুযোগ করে দিয়েছিলো রসুলপুরের দুইটা স্কুলের শিক্ষার্থী এবং এলাকাবাসীকে তাদেরই এলাকার ৫ জন মুক্তিযোদ্ধাদের মুখে যুদ্ধের গৌরবের স্মৃতি কথা শুনতে এবং রসুলপুর বধ্যভূমিতেই এবারই প্রথম বধ্যভূমির ইতিহাস নিয়ে আলোচনা করা হয় শিক্ষার্থীদের সামনে।
স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, স্কুলের প্রধান শিক্ষক এবং এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ বলেন “প্রতি বছর স্বাধীনতা দিবস এবং বিজয় দিবসে বধ্যভূমিতে একবার করে হলেও যদি অনুষ্ঠান করা হয় তাহলে বধ্যভূমির মর্যাদা ও চেতনা সম্পর্কে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা জানতে পারত”।

সকলেই ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ কে প্রথমবারের এই উদ্যোগ নেওয়ার জন্য ধন্যবাদ জানায় এবং প্রতি বছর এই ইভেন্ট হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। ইভেন্ট শেষে শিক্ষার্থীরাই বধ্যভুমির রক্ষনাবেক্ষনের দায়িত্ব নেন এবং বধ্যভূমির মর্যাদা অক্ষুণ্য রাখার শপথ নেন।
ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ কুমিল্লা জেলার সকল ভলান্টিয়ারদের অনেক ধন্যবাদ ইভেন্টটি সুন্দরভাবে সম্পন্ন করার জন্য ।

Leave a Reply